আমার একটাই দুঃখ তার মুখে চড় মারতে পারিনি : নেইমার

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ১২:৩৭ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
আমার একটাই দুঃখ তার মুখে চড় মারতে পারিনি : নেইমার

গত রাতে পিএসজি-মার্শেই ক্লাসিকো ম্যাচে ঝড় বয়ে গেছে। ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের পুরো ম্যাচেই দুদলের খেলোয়াড়দের মাঝে দ্বন্দ্ব লেগে ছিল।

তবে শেষ সময়ে একেবারে বিস্ফোরণ হলো। এক ফাউলকে কেন্দ্র করে দু’দলের পাঁচ খেলোয়াড় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। যেখানে ছিলেন পিএসজির নেইমার।

রোববার ঘরের মাঠ পার্ক দেস প্রিন্সেসে খেলতে নামে পিএসজি। কিন্তু মার্সেইর প্রাচীরের সামনে বারবার হতাশ হতে হয়েছে স্বাগতিকদের। মার্সেই গোলরক্ষক স্টিভ মাঁদাঁদা বেশ কয়েকটি নিশ্চিত সুযোগ সেভ করেছেন। ৩১তম মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন ফরোয়ার্ড ফ্লোরিয়ান থাভিন। আর এই গোলেই পিএজির হার নিশ্চিত হয়ে যায়।

খেলার অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে দু’দলের মাঝে ঝামেলা বেধে যায়। একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে ধাক্কাধাক্কিতে জড়ায় দুই দলের ফুটবলাররা। এমনকি একজন আরেকজনকে লাথিও মারতে দেখা যায়। এই ঘটনায় রেফারি লাল কার্ড দেখান পিএসজির নেইমার, লেভিন কুরজাওয়া ও লিয়ান্দ্রো দানিয়েল পারেদেস এবং মার্সেইয়ের জর্ডান আমাভি ও দারিও বেনেদেত্তোকে। এছাড়া পুরো ম্যাচে মোট লাল-হলুদ মিলিয়ে ১৭টি কার্ড দেখানো হয়।

পিএসজির হয়ে শেষ খেলোয়াড় হিসেবে লাল কার্ড দেখেন নেইমার। তিনি প্রতিপক্ষের আলভারো গনসালেসের মাথার পেছনে হাত দিয়ে আঘাত করেন। রেফারি ভিএআর দেখে নিশ্চিত হন। যদিও দুজনকে এর আগে বিতর্কে জড়াতে দেখা যায়।

পরে গনসালেসের বিরুদ্ধে বর্ণবাদে অভিযোগ তোলেন নেইমার। এক টুইটে নেইমার জানান, সে বর্ণবাদী, তাই আমি তাকে আঘাত করেছি। তবে আমার একটাই আফসোস, আমি তার মুখে আঘাত করতে পারিনি।

আরেক টুইটে নেইমার পরিষ্কার করে জানান, আমার আক্রমণটা ভিএআর সহজেই দেখিয়ে দিল। এখন আমি দেখতে চাই যে আমাকে বাঁদর বলে গালি দিয়েছে তার চেহারাটা। এটাই আমি দেখতে চাই। আমি রেইনবো ফ্লিক করলে আমাকে শাস্তি দেওয়া হয়, আঘাত করার জন্য আমাকে লাল কার্ড দেখতে হয়। তাদের কি হবে? তারপর কি?