ভারতে ফ্লাইওভার ধসে ১৮ জনের প্রাণহানি

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ০১:৩৪ পিএম, ১৬ মে ২০১৮
ভারতে ফ্লাইওভার ধসে ১৮ জনের প্রাণহানি

ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের বারানসিতে একটি নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারটির দুটি পিলার হঠাৎ ভেঙে পড়ে ১৮ জনের প্রাণহানি ঘটে। এসময় আহত হয়েছে আরও বহু মানুষ। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বারাণসী ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন সংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ফ্লাইওভার ধসে ঘটনাস্থলেই ১৬ জন নিহত হন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুজন মারা যান।

জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় বারানসি ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশন এলাকায় ওই ফ্লাইওভারটির দুটি পিলার হঠাৎ ভেঙে পড়ে। ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনো অর্ধশতাধিক মানুষ আটকা পড়ে আছেন বলে জানা যায়।

এ সময় ফ্লাইওভারের নিচে চাপা পড়ে একটি যাত্রীবাহী মিনিবাস, চারটি গাড়ি ও একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা। এ ছাড়া ফ্লাইওভারের ওপরে কর্মরত শ্রমিকদের অনেকেই এ সময় চাপা পড়েন।

এদিকে, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছে ভারতের জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ও উত্তর প্রদেশ পুলিশ। এ ছাড়া ধ্বংসস্তূপ সরাতে নিয়ে আসা হয়েছে জেসিবি ও আটটি ভারী ক্রেন।

তবে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, দুর্ঘটনার পর দ্রুত উদ্ধারকাজ শুরু করা হয়নি। প্রায় এক ঘণ্টা পর উদ্ধারকাজ শুরু হয়। আর স্থানীয়রাই প্রাথমিকভাবে উদ্ধারকাজ শুরু করেন।

এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগি আদিত্যনাথ।

নরেন্দ্র মোদি তার টুইট বার্তায় বলেন, ‘বারানসিতে ফ্লাইওভার দুর্ঘটনার পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। হতাহতের ঘটনায় আমি দুঃখিত। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’

অন্যদিকে, এরই মধ্যে দুর্ঘটনায় আহত ও নিহতদের প্রত্যেক পরিবার পাঁচ লাখ রুপি এবং আহতদের প্রত্যেকে দুই লাখ রুপি করে ক্ষতিপূরণের ঘোষণা দিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগি আদিত্যনাথ সরকার।

এর আগে ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ কলকাতার পোস্তা এলাকায়ও একইভাবে নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের একাংশ ভেঙে পড়ে। মৃত্যু হয় ২৭ জনের।

বিএইচ