সিরিয়ায় একক হামলার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ০৪:২৪ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৮
সিরিয়ায় একক হামলার হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

সিরিয়ায় সরকারি বাহিনীর হামলা বন্ধ করতে এককভাবে হামলার হুমকি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এ বিষয়ে জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নিক্কি হ্যালি জানান, জাতিসংঘ যদি কিছু করতে না পারে, তবে পূর্ব ঘৌটায় বেসামরিক লোকদের ওপর সিরীয় বাহিনীর বোমা হামলা বন্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক পদক্ষেপ নিতে চাচ্ছে।

পূর্ব ঘৌটায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার প্রস্তাব উত্থাপনের পর তিনি এসব কথা বলেন।

সোমবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে তিনি বলেন, যখন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কোনো কিছু করতে ব্যর্থ হয়, তখন যুক্তরাষ্ট্রকে পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হতে হয়।

নিকি হ্যালি আরও জানান, আমরা এই পথকে প্রাধান্য দিচ্ছি না। কিন্তু বাধ্য হলে আমরা তা করতে প্রস্তুত আছি।

২০১৭ সালে সিরিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত একটি বিমানঘাঁটিতে মার্কিন হামলার প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, আমেরিকা সব সময় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য প্রস্তুত।

এদিকে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌতার বাসিন্দাদের দুর্ভোগ লাঘবের আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, এখন আমাদের একটি মাত্র এজেন্ডা থাকা দরকার। সেটা হচ্ছে সিরীয় জনগণের দুর্ভোগ বন্ধ করা এবং এই সংঘাতের রাজনৈতিক সমাধান বের করা।

syria

এদিকে সংঘাতের কারণে সিরিয়ার প্রায় ৪ লাখ বাসিন্দা খাদ্য ও চিকিৎসা সামগ্রীর তীব্র সঙ্কটের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। সেখানে ত্রাণ সামগ্রীর গাড়িবহর ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। আর ত্রাণবাহী গাড়ি ঢুকলেও তাদের কার্যক্রম ব্যহত করা হচ্ছে। এসব ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন গুতেরেস।

সিরিয়ার সরকার ও তার মিত্ররা বলছেন, সিরিয়ায় তৎপর সন্ত্রাসীদের বাঁচাতেই আমেরিকা যুদ্ধবিরতির নতুন নতুন প্রস্তাব উত্থাপন করছে। কারণ সিরিয়ায় আমেরিকা সন্ত্রাসীদের পক্ষ নিয়েছে।

সিরিয়ায় গত আট বছর ধরে গৃহযুদ্ধ চলছে। সর্বশেষ প্রায় এক মাস ধরে চলা দফায় দফায় বিমান হামলায় ১ হাজার ২২ জন বেসামরিক নিহত হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছে আরও ৪ হাজার ৩৭৮ জন। এদের মধ্যে ২২৭ জন শিশু এবং ১৪৫ জন নারী।

বিএইচ