‘ধর্ষকদের জনসমক্ষে ফাঁসি বা ওষুধ দিয়ে বন্ধ্যা করে দেওয়া উচিত’

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ১১:২৮ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
‘ধর্ষকদের জনসমক্ষে ফাঁসি বা ওষুধ দিয়ে বন্ধ্যা করে দেওয়া উচিত’

ধর্ষকদের জনসমক্ষে ফাঁসি অথবা ওষুধ দিয়ে বন্ধ্যা করে দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সম্প্রতি দেশটিতে আলোচিত গণধর্ষণের ঘটনায় ইসলামাবাদে চলমান নারী আন্দোলনকারীদের সমর্থন জানিয়ে ইমরান খান এমন মন্তব্য করেছেন। পাকিস্তানের ৯২ নিউজ এইচডি টেলিভিশনের সাংবাদিক মুয়িদ পীরজাদার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে গতকাল সোমবার এমন মন্তব্য করেন তিনি। সংবাদপত্র ডন তাদের অনলাইনে এ খবর জানিয়েছে।

ইমরান খান বলেন, ‘যারা ধর্ষিত হচ্ছে, তারা আমাদের মেয়ে বা বোন।’ তাই ধর্ষণ বন্ধে এমন উদ্যোগের পক্ষে অবস্থান নেবেন তিনি।

এ সময় পাকিস্তানে নারীর প্রতি সহিংসতার হার অনেক বেশি হলেও গণধর্ষণের মতো ঘটনা কম বলে দাবি করেন ইমরান খান। তবে প্রেমঘটিত বিয়ের কারণে প্রতিবছর হাজারো নারী আত্মহননের পথ বেছে নিচ্ছেন বলেও জানান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

শুধু পুলিশ নয়, সমাজের সবাই মিলে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আহ্বান জানিয়ে ইমরান খান বলেন, বিশ্বের ইতিহাস বলে, সমাজে অশ্লীলতা বাড়লে দুটি জিনিস হয়। যৌনতাভিত্তিক অপরাধ বাড়ে আর পরিবার পদ্ধতি ভেঙে পড়ে। যুক্তরাজ্যের অশ্লীলতার মাত্রা বেশি থাকায় বর্তমানে সেখানে বিবাহবিচ্ছেদের ঘটনা ৭০ শতাংশে গিয়ে ঠেকেছে।

পশ্চিমের সঙ্গে তুলনা করে ইমরান খান বলেন, ‘আমাদের পারিবারিক বন্ধন অনেক দৃঢ়। আমরা আমাদের বিচার ব্যবস্থায় রূপান্তর আনতে পারি, কিন্তু পরিবারপ্রথা ভেঙে পড়লে তা আর ফিরিয়ে আনা যাবে না।’ বলিউড উন্মাদনার কবলে পড়ে ভারতের দিল্লি ধর্ষণের নগরীতে পরিণত হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।