সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ চীনা প্রেসিডেন্ট

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ২৭ মে ২০২০
সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার নির্দেশ চীনা প্রেসিডেন্ট

একদিকে ভারতের সঙ্গে সীমান্তে সংঘাত চলছে চীনের। অন্যদিকে হংকংয়ে নতুন করে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। আবার বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের বিপর্যয়ও চলছে। এরইমধ্যে যেন যুদ্ধের বার্তা দিয়েছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

মঙ্গলবার (২৬ মে) তিনি দেশের সেনাবাহিনীকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, যেকোনো যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হতে হবে। দেশকে সুরক্ষা দিতে সবরকমভাবে প্রস্তুতি থাকা চাই। আর এ কথা তিনি তখনই বললেন, যখন ভারত সীমান্তে উত্তেজনা চলছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, অন্তত ১০০ তাঁবু বানিয়ে লাদাখের কাছে ঘাঁটি বসিয়েছে চীনা সেনাবাহিনী। সেখানে আবার অনেকগুলো চীনা ফাইটার জেটের অবস্থানও পেয়েছে ভারতীয় স্যাটেলাইট।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং বলেন, চীন সশস্ত্র যুদ্ধের জন্য তার প্রস্তুতি বাড়াবে। একইসঙ্গে দেশের সামরিক কাজ সম্পাদনের ক্ষমতারও উন্নতি করবে। কারণ করোনা ভাইরাস মহামারিটি জাতীয় সুরক্ষায় গভীর প্রভাব ফেলছে।

চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন জানিয়েছে, শি জিনপিং এও বলেন, নতুন করোনা ভাইরাসের লড়াইয়ে দেশের সামরিক বাহিনী সাফল্য দেখিয়েছে। এরপরও মহামারিতে সশস্ত্র বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার নতুন উপায় অন্বেষণ করা উচিত।

চীনের কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের সভাপতিত্ব করেন প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। তিনি সংসদের বার্ষিক অধিবেশন চলাকালীন পিপলস লিবারেশন আর্মি ও পিপলস সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীর প্রতিনিধি দলের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ বৈঠকে অংশ নেওয়ার সময় এ কথা বলেন।

চীনের কিছু সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা গেছে, চীনের দ্বিতীয় যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী শিপইয়ার্ড ছেড়ে বের হচ্ছে। যদিও ওই ছবি বা ভিডিও’র সত্যতা যাচাই করা হয়নি। তবে ওই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ার পরই শি জিনপিং এমন বার্তা দেওয়ায় ‘যুদ্ধ বেঁধে যেতে পারে’ এমন চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, লাদাখের দিকে চীন সীমান্তে পরিস্থিতি থমথমে। স্যাটেলাইটের ছবিতে চীনা যুদ্ধবিমানের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এ অবস্থায় মঙ্গলবার নয়াদিল্লিতে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে বসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। এছাড়াও ছিলেন সংশ্লিষ্ট দপ্তরের শীর্ষ কর্মকর্তারা। ছিলেন তিন বাহিনীর প্রধানরাও। চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াতও অংশ নেন বৈঠকে।