কারাগারে যেভাবে সময় কেটেছে রিয়ার

জাগো বাংলা ডেস্ক প্রকাশিত: ০৪:৪৫ পিএম, ০৮ অক্টোবর ২০২০
কারাগারে যেভাবে সময় কেটেছে রিয়ার

বলিউডের মাদাককাণ্ডে নাম জড়ানোয় ২৮ দিন কারাভোগের পর বুধবার (০৭ অক্টোবর) জামিন পেয়েছেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। একইদিন বিকেলে মুম্বাইয়ের বাইকুল্লা জেল থেকে বাসায় ফিরেছেন তিনি।

একমাস পর রিয়ার জামিনে স্বস্তি প্রকাশ করেছে তার পরিবার। পাশাপাশি রিয়া এতদিন কারাগারে কীভাবে সময় কাটিয়েছে তা জানিয়েছেন তার আইনজীবী সতীশ মাণেশিন্ডে। বন্দি থাকা অবস্থায় তিনি তাকে কারাগারে দেখতে গিয়েছিলেন।

রিয়া কারাগারে নিয়মিত ইয়োগা করতেন এবং কারাবন্দিদের ইয়োগা ক্লাস করাতেন বলেও জানান তিনি। মহামারির কারণে রিয়া কারাগারে নিজের বাড়ির খাবার খেতেন না। কারাগারের খাবারই খেয়েছেন। এছাড়া বন্দিদের সঙ্গে একেবারে সাধারণ একজন মানুষের মতই মিশেছেন।

আইনজীবী সতীশ মাণেশিন্ডে জানান, কারাগারে রিয়াকে দেখতে গিয়ে তিনি বেশ অবাক হয়েছেন। তাকে খুব স্বাভাবিক দেখেছেন তিনি। এই অভিনেত্রী নিজের খেয়াল রেখেছেন। নিজে ইয়োগা করেছেন পাশাপাশি কারাবন্দিদেরও ক্লাস করিয়েছেন।

সেনা বাহিনীর পরিবেশে বেড়ে ওঠার কারণে যে কোনও কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করার মানসিকতা রিয়ার রয়েছেন বলেও জানান এই আইনজীবী।

বুধবার (৭ অক্টোবর) মুম্বাই হাইকোর্ট রিয়া চক্রবর্তীকে জামিন দিয়েছেন। বিচারক এস ভি কোতওয়াইয়ের একক বেঞ্চ রিয়া চক্রবর্তীকে জামিন দেয় এক লাখ রুপির বন্ডে। তাকে পাসপোর্ট জমা রাখতে বলা হয়। এছাড়াও জামিন পেয়েছেন স্যামুয়েল মিরান্ডা, দীপেশ সাওয়ান্তরাও। তবে জামিন পাননি অন্য দুই অভিযুক্ত রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তী ও আবদুল বাসিত।

রিয়ার জন্যে আদালতের নির্দেশ, মুম্বাই ছাড়তে গেলেও তদন্তকারীদের অনুমতি নিতে হবে। কোনও ভাবেই বিদেশ যাওয়া চলবে না তার। দশদিন পর আবারও তাকে হাজিরা দিতে হবে থানায়।

টানা তিনদিন জিজ্ঞাসাবাদের পর গত ৮ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তীকে। মাদক যোগের অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করে নারকোটিস কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। তখন তাকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত। এরপর মেয়াদ আরও বাড়ানো হয়।