ফতুল্লায় পুলিশের অস্ত্র চুরির আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

জাগো বাংলা রিপোর্ট প্রকাশিত: ০১:২০ পিএম, ১৬ মে ২০১৮
ফতুল্লায় পুলিশের অস্ত্র চুরির আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় পুলিশের অস্ত্র ছিনতাই মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে দুই রাউন্ড গুলিভর্তি একটি রিভলবার ও তিনটি বড় ছুরি উদ্ধার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে দাপা আলামিননগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বন্দুকযুদ্ধে নিহত পারভেজ (৩০) ফতুল্লার দাপা পাইলট স্কুল এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসাসহ ছিনতাই, চুরি ও ডাকাতির একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

পুলিশ জানায়, গত ১৩ মে (রোববার) রাতে এএসআই সুমন কুমার পালের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম ফতুল্লা রেল স্টেশন রোড এলাকার একটি বালুর মাঠে ডিউটিরত ছিলেন। গভীর রাতে কনস্টেবল সোহেল রানার সঙ্গে থাকা একটি চাইনিজ রাইফেল খোয়া যায়।

পরদিন বেলা ১১টায় ফতুল্লার দাপা বালুর মাঠের পাশের একটি ডোবার পাশ থেকে রাইফেলটি উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানার এএসআই সুমন কুমার পাল, তিনজন কনস্টেবল মাসুদ রানা, আরিফ ও সোহেল রানাকে দায়িত্বে অবহেলার জন্য সাময়িক প্রত্যাহার করা হয়।

ওই ঘটনায় পরে সুমন কুমার পাল বাদী হয়ে পারভেজসহ তিনজনকে আসামি করে সোমবার রাতেই ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন। এতে অভিযোগ করা হয় পারভেজ ওই অস্ত্রটি ছিনতাই করেছিল।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে দাপা আলামিননগর এলাকায় ছিনতাইকারীদের দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির খবর পায় পুলিশ। পরে পুলিশের একটি টিম সেখানে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে তারা গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে পারভেজ মারা যায়।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

বিএইচ