ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলা : দুজনকে গ্রেফতার দেখালে ডিবি পুলিশ

জাগো বাংলা রিপোর্ট প্রকাশিত: ১২:৪৫ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০২০
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলা : দুজনকে গ্রেফতার দেখালে ডিবি পুলিশ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রী ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহযোগিতার করার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সাইফুল ইসলাম ও সংগঠনটির ঢাবি শাখার সহসভাপতি মো. নাজমুল হুদাকে গ্রেফতার দেখিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

রোববার রাতে রাজধানী থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ডিএমপির গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) লালবাগ বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) রাজীব আল মাসুদ।

সোমবার দুপুরে তিনি বলেন, ‘ধর্ষণের অভিযোগ তুলে এক ঢাবি ছাত্রীর দায়ের করা মামলার চার নম্বর আসামি মো. সাইফুল ইসলাম ও পাঁচ নম্বর আসামি মো. নাজমুল হুদাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দুপুরে গ্রেফতার দুজনকে আদালতে সোপর্দ করা হচ্ছে। মামলার বাকি আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এর আগে রোববার রাতে ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান বলেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম ও ঢাবি শাখার সহ-সভাপতি নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগে মামলা আছে। এরমধ্যে নাজমুলকে দুপুরে কে বা কারা তুলে নিয়ে যায়। এছাড়া, ছাত্র অধিকার পরিষদের দুই নেতা সোহরাব হোসেন ও আসিফ মাহমুদকে সাদা পোশাকে তোলে নিয়ে গেছে।

তিনি আরও বলেন, কোনো ধরনের গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়া ছাত্র অধিকার পরিষদের চার নেতাকে পুলিশ তুলে নেয়ার অভিযোগ পেয়েছি। আমরা ও ভুক্তভোগীর পরিবার পুলিশ ও ডিবিতে খোঁজ করে পাচ্ছি না। পুলিশ যেহেতু তাদেরকে গ্রেফতারের কথা বলছে না, তাই আমরা ধরে নিয়েছি রাষ্ট্রীয় বাহিনী দ্বারা গুম হয়েছেন তারা। আমরা ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

রাশেদ খান বলেন, সারাদেশে ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলনকে দমানোর জন্য এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিতে সরকার এ কাজ করছে।