ছাত্রদল নেতা ফারুককে কুপিয়ে হত্যা

জাগো বাংলা রিপোর্ট প্রকাশিত: ০১:৪০ পিএম, ১২ জুলাই ২০২০
ছাত্রদল নেতা ফারুককে কুপিয়ে হত্যা

খাগড়াছড়ির রামগড়ে মোহাম্মদ ফারুক নামে এক ছাত্রদল নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি রামগড় কলেজ ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক।

মোহাম্মদ ফারুক রামগড়ের বৈরাগী টিলা এলাকার মো. আলী নেওয়াজের ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন।

শনিবার (১১ জুলাই) রাত আনুমানিক ১১টার দিকে রামগড়ের কালাডেবা বাজার থেকে বৈরাগী টিলা এলাকার বাড়িতে ফিরছিলেন মোহাম্মদ ফারুক। এ সময় কতিপয় দুর্বৃত্ত কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে রাস্তায় ফেলে রেখে যায় তাকে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে রামগড় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে তিনি মারা যান।

শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচার দাবি করেছেন সাবেক সংসদ সদস্য ও খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ওয়াদুদ ভুইয়া। খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রদলের দফতর সম্পাদক বাপ্পী দাশ স্বাক্ষরিত এক শোক বার্তায় এ দাবি জানান তিনি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রামগড় থানার ওসি মুহাম্মদ শামসুজ্জামান জানান, শনিবার রাতে কে বা কারা মোহাম্মদ ফারুককে কুপিয়ে জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় এখনও কেউ মামলা করেনি।